মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ১০:৪১ অপরাহ্ন

রাঙ্গামাটির আয়মাছড়াতে আওয়ামী লীগের আহবায়ক কমিটির সভা বয়কট করেছেন আওয়ামী নেতৃবৃন্দ

মোঃ আরিফুল ইসলাম, রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৩ এপ্রিল, ২০২১
  • ৩৫৯ বার পঠিত

গতকাল ২রা এপ্রিল রোজ শুক্রবার রাঙ্গামাটি জেলার বরকল উপজেলা আওয়ামী লীগের বহু বিতর্কিত ১৭ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটির সংবর্ধনা অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বরকলের আইমাছড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ব্যানারে উক্ত অনুষ্ঠান হলেও অত্র ইউনিয়নে প্রায় ৯৫ ভাগ আওয়ামী নেতৃবৃন্দ অনুপস্থিত ছিলেন বলে জানা যায়। জনসমাগম বাড়াতে পার্শবর্তী ভুষনছড়া ইউনিয়ন থেকে মানুৃষ আনতে হয়েছে আয়োজক কমিটির। এ বিষয়ে অত্র ইউনিয়নের বাসীন্দা, বরকল উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা কমিটির সদস্য এবং সাবেক যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মো আইনুল ইসলাম, সাবেক সহ সভাপতি নুরুল হক, মজিবুর ইসলামসহ আরো অনেকের সাথে কথা বললে তারা জানান, ভাড়াটেদের দিয়ে বর্তমানে আওয়ামী সংগঠনের করা আহবায়ক কমিটিকে অত্র ইউনিয়নের আওয়ামী নেতৃবৃন্দ ও আপামর সাধারণ জনগন বয়কট করেছেন। আওয়ামী লীগের অনেক ত্যাগী ও প্রবীণদের অবমুল্যায়ন করে ২০১০ এর পর দলে আসা অনুপ্রবেশকারী ও হাইব্রিডদের নিয়ে গড়া এই কমিটি দলের জন্য চরম ভোগান্তি ডেকে এনেছে। আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ভালোবেসে নিজের ও পরিবারের শ্রম ও রক্ত বিসর্জন দিয়ে দলকে এই অবস্থানে এনেছিলাম। কিন্তু সিনিয়র নেতৃবৃন্দের কিছু মনগড়া সিদ্ধান্তে সংগঠনের আজ এই করুন পরিণতি হয়ে গেছে। দলের দুঃসময় আমরা ছিলাম এখনতো সুসময় তাই কিছু দুধের মাছি এসে জুটেছে। আবার দুঃসময় আসলে যখন এরা পুনরায় তাদের গন্তব্যে ফিরে যাবে তখন আমরা আবার বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বাচাতে রাজপথে নামব। উক্ত সভায় শুধু আওয়ামী লীগই নয় বয়কট করেছেন ছাত্র লীগ, যুব লীগসহ অন্যান্য সংগঠনের নেতৃবৃন্দরাও। এছাড়াও তারা অত্র ইউনিয়নে আহবায়ক রুহুল আমিন ফরাজীর নামেও করেছেন একাধিক অভিযোগ। বিগত কিছুদিন আগে জেলা পরিষদ থেকে পাওয়া দলীয় বরাদ্দের টাকায় কোন কাজ না করে কিংবা দলের পরিশ্রমী ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দকে না দিয়ে নিজেই পুরোটা পকেটস্থ করেছেন। এর আগেও একাধিকবার তিনি একই কাজ করেছেন বলে জানা যায়। তাছাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দলীয় অফিসটা সে অনেকটা নিজের পার্সোনাল অফিস হিসেবেই সচরাচর ব্যবহার করে থাকেন। যার ফলে কর্মীদের অনেক সময় ভোগান্তিতে পড়তে হয়। আজকের সভায় অত্র ইউনিয়ন তথা বরকল উপজেলা আওয়ামী লীগের জনপ্রিয় ব্যাক্তিত্ব উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এবং উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ মিজানুর রহমান( বিগত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মলনে যিনি বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছিলেন কিন্তু পরবর্তীতে প্রতিপক্ষ প্রার্থী রুহুল আমিন ফরাজীর বাধায় উক্ত সম্মেলন স্থগিত হয়) এর মত নেতারা ছিলেন অনুপস্থিত।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..