মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ০৭:৫৭ অপরাহ্ন

নিরাপদ অভিভাসন বিষয়ে গাইবান্ধায় সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়।

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৯ মার্চ, ২০২১
  • ৩৪৮ বার পঠিত

নিরাপদ অভিভাসন বিষয়ে গাইবান্ধায় সাংবাদিকদের সাথে মঙ্গলবার স্থানীয় নশরতপুরে গণ উন্নয়ন কেন্দ্রে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ও মূল আলোচক ছিলেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসের সহকারী পরিচালক মো. নেশারুল হক।
গণউন্নয়ন ক্রেন্দের উদ্যোগে মতবিনিময়কালে সাংবাদিকদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কেএম রেজাউল হক, আবু জাফর সাবু, গোবিন্দলাল দাস, সিদ্দিক আলম দয়াল, উত্তম সরকার, আফরোজা লুনা, রিকতু প্রসাদ ও জিইউকের সমন্বয়কারী মো. আফতাব হোসেন, কর্মসূচী ব্যবস্থাপক জয়া প্রসাদ প্রমুখ। এই মতবিনিময় সভায় জেলার প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার কতিপয় সাংবাদিক ছাড়াও প্রবাস গমন ইচ্ছুক, বিদেশ ফেরত ও প্রবাসে অবস্থানকারী ব্যক্তিদের পরিবাররা অংশ গ্রহণ করেন। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, এই মতবিনিময় সভায় বিদেশগমন ইচ্ছুক ব্যক্তিদের প্রশিক্ষণ গ্রহণসহ নানা বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টি, নিরাপদ বিদেশগমন নিশ্চিত করা, বিদেশে অবস্থানকারী ব্যক্তি ও বিদেশ ফেরত ব্যক্তিবর্গের নানা সমস্যা সংকট, দালালদের খপ্পরে পড়ে ক্ষতিগ্রস্ত না হওয়া, দালালদের ডাটাবেজ তৈরী করে তাদের বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ, সরকারি ব্যবস্থাপনায় বিদেশ গমন, বিদেশে ক্ষতিগ্রস্ত ও প্রতারিত বিদেশ ফেরত ব্যক্তি ও পরিবার এবং জলবায়ুর বিরূপ প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্ত নানা সমস্যা সংকটগ্রস্ত পরিবারগুলোর পুনর্বাসনের ব্যবস্থা গ্রহণের উদ্যোগ গ্রহণসহ নানা তথ্য উপস্থাপন করা হয় ও বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।
উল্লেখ্য, গণ উন্নয়ন কেন্দ্র এই লক্ষ্য অর্জনে ২০২০ সালের ১৫ নভেম্বর থেকে ২০২২ সালের ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত ২৬ মাসের জন্য গাইবান্ধা সদর ও ফুলছড়ি উপজেলার একটি বিশেষ প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। প্রকল্পের আওতায় গাইবান্ধা সদরের গিদারী, বোয়ালী ও কামারজানি ইউনিয়নের ২৭টি ওয়ার্ড ও ফুলছড়ি উপজেলার উদাখালী, গজারিয়া ও ফজলুপুর ইউনিয়নের ২৭টি ইউনিয়নে এই প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হচ্ছে। এই সমসত্ম এলাকার ১ হাজার ৮০টি পরিবারের মধ্যে ১শ’ ৫০টি বিদেশ ফেরত, ১শ’ ৫০টি স্থানীয় পর্যায়ে বিভিন্ন স্থানে স্থানান্তরিত পরিবার এবং জলবায়ুর বিরূপ প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্ত ৭শ’ ৮০টি পরিবারকে সচেতনতা সৃষ্টি ও পুনর্বাসনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..