মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ০৪:২৪ অপরাহ্ন

গাইবান্ধা শহরের ফোরলেন রাস্তা প্রশস্ত করণে কাজে সড়ক ও জনপথ বিভাগের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ।

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৩২৭ বার পঠিত

গাইবান্ধা শহরের ফোরলেন রাস্তা প্রশস্ত করণ কাজে সড়ক ও জনপথ বিভাগের অবৈধ স্থাপনা উদ্ধারে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারী) দিনব্যাপী পৌর শহরের বাসটার্মিনাল থেকে ১নং রেলেগেইটের পূর্বে ট্রাফিক মোড় পর্যন্ত সড়ক ও জনপথ বিভাগ রাস্তার দু’পার্শ্বে জায়গা উদ্ধারে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেন গাইবান্ধা সড়ক ও জনপথ বিভাগে নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ফিরোজ আখতার। ঢাকার সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কার্যালয়ের জমি-জমা সংক্রান্ত আইন বিষয়ক কর্মকর্তা (উপ-সচিব) কামরুজ্জামান মিয়াসহ অন্যান্য এসময় উপস্থিত ছিলেন। উপ-সচিব কামরুজ্জামান উচ্ছেদ অভিযান পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের জানান, গাইবান্ধা শহরে ফোরলেন রাস্তা প্রশস্তকরণে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়। উচ্ছেদের আগে মাইকিং করা হয়েছে। যারা রাস্তার জায়গা অবৈধভাবে দখল করে আছেন নিজে থেকে সড়ায়নি জনস্বার্থে তাদেরকে আমরা উচ্ছেদ করছি। সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ফিরোজ আখতার জানান, ১৯৬২ সালের আগেই এই জমিগুলো অধিগ্রহণ করেছে সরকার। সড়ক ও জনপথ বিভাগের এটি নিজস্ব জমি। আমরা আমাদের নিজস্ব জায়গাতেই কাজ করছি। কাজ করতে গিয়ে দেখি অবৈধ দখলকৃত ব্যক্তিরা তাদের স্থাপনা সড়ায়নি ভেপু দিয়ে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করাহচ্ছে। এদের ক্ষতিপূরণ পাওয়ার কোনো প্রশ্নই আসেনা। উচ্ছেদ অভিযানের আগে তাদেরকে সতর্কিকরণ নোটিশ প্রদান ও মাইকিং করা হয়েছিল। উচ্ছেদ অভিযানে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিসকর্মী সার্বক্ষণিক সহযোগিতা করেন। সিঙ্গার শোরুম মার্কেটের কয়েকজন ভুক্তভোগী জানান, কোনো প্রকার নোটিশ প্রদান ছাড়াই এগুলো উচ্ছেদ করছে সড়ক ও জনপথ বিভাগ। এতে করে আমাদের অনেকটা ক্ষতি হয়ে গেল। উল্লেখ্য, হাইকোর্ট মামলা জটিলতার কারণে এতদিন বাস টার্মিনাল থেকে ১নং রেলগেইট পর্যন্ত ১ কিলোমিটার রাস্তার দু’পাশে ফোরলেনের কাজ স্থগিত ছিল।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..