বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ০৫:১৯ পূর্বাহ্ন

গাইবান্ধা জেলা বার এসোসিয়েশনের নির্বাচনে সভাপতি লাছু ও সাধারণ সম্পাদক বাবু নির্বাচিত।

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৪০৩ বার পঠিত

গাইবান্ধা জেলা বার এসোসিয়েশন গাইবান্ধার নির্বাচনে এ.এম.এম আহসানুল করিম লাছু সভাপতি ও সিরাজুল ইসলাম বাবু সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারী) রাতে ভোট গণনা শেষে তাদের বিজয়ী ঘোষণা করে সংশ্লিষ্ট নির্বাচন কমিশন। এরআগে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বার ভবনের তৃতীয় তলায় দিনব্যাপী ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এসোসিয়েশনের ২শ’ ৫৯ জন ভোটারের মধ্যে ২শ’ ৪৬ ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। ২০২১ সালের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনে ১৭টি পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন ৪১ জন আইনজীবী প্রার্থী। এরমধ্যে শিক্ষা ও সংস্কৃতি পদে একজন প্রার্থী হওয়ায় তিনি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন। বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে এ ফলাফল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার অ্যাডভোকেট এটিএম সাইফুর রহমান চৌধুরী।
ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী এ.এম.এম আহসানুল করিম লাছু ৯৭ ভোট পেয়ে সভাপতি পদে নির্বাচিত হন। এ পদে আরো তিনজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তারা হলেন ফারুক আহম্মেদ প্রিন্স, মো. সেকেন্দার আযম আনাম ও মো. সুলতান আলী মন্ডল।
সাধারণ সম্পাদেক পদে সিরাজুল ইসলাম বাবু ১শ’ ২৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। বিজয়ী প্রার্থী ছাড়াও এ পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন গোলাম সারওয়ার মো. আলমগীর। তিনি পেয়েছেন ১শ’ ১৭ ভোট। এছাড়া নির্বাচনে সহ-সভাপতি-১ পদে নিরঞ্জন কুমার ঘোষ ১শ’ ২১ ভোট এবং সহ-সভাপতি-২ পদে মো. মাহবুবুল আলম আকন্দ সেলিম ৯২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। এ পদে আরো তিনজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তারা হলেন একেএম হানিফ বেলাল, মো. হোসাইন রেজা ও এমএ ওয়াহেদ মিয়া।
যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক-১ পদে মো. সরওয়ার হোসেন বাবুল ১শ’ ৮১ ভোট এবং যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক-২ পদে মো. জাহাঙ্গীর হোসেন ১শ’ ২৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। এ পদে আরো তিনজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তারা হলেন মো. মেহেরাজ আলী সরকার, মো. মাসুদুর রহমান বিশ্বাস ও মো. জাহাঙ্গীর আলম। কোষাধ্য পদে মো. আবুল কাশেম শহিদার ৯৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। এ পদে আরো দু’জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তারা হলেন খন্দকার মঞ্জুরুল করিম সোহেল ও মো. রফিকুল আলম চঞ্চল।
গ্রন্থাগার সম্পাদক পদে এস.এম মাজহারুল ইসলাম সোহেল ১শ’ ৭২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। এ পদে তার সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন মো. শামসুজ্জোহা শামীম।
সাহিত্য ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক পদে মো. মাজেদুল ইসলাম প্রধান তুহিন ৭২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। এ পদে আরো তিনজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তারা হলেন সাঈদ আহমেদ আজাদ জয়, মো. তৌফিকুর রহমান নিয়ন ও পিযুষ কান্তি পাল।
সহ-সাহিত্য ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক পদে মো. মাহাবুবার রহমান মঞ্জু ১শ’ ২৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। এ পদে তার সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন মো. আবুল বাশার।
এদিকে শিল্প ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক পদে কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী না থাকায় মো. শাহনেওয়াজ খান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।
নিরীক্ষক পদে মো. রেজা মিয়া ১শ’ ৪৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। এ পদে তার সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন গোবিন্দ চন্দ্র পাল।
এছাড়া জেলা বার এসোসিয়েশন গাইবান্ধার কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যের ৮টি পদে মো. সোয়াইব আহমেদ ১শ’ ৯৯ ভোট, এস.এম ফয়ছাল হোসেন ১শ’ ৮৩ ভোট, এম.এ মাজেদ সরকার ১শ’ ৬৯ ভোট, মো. মাসুদার রহমান মাসুদ ১শ’ ৬৫ ভোট, মো. আব্দুর রহমান ১শ’ ৬৩ ভোট, মো. শরিফুল ইসলাম রুবেল ১শ’ ৬১ ভোট, মো. ফারুকুল ইসলাম ১শ’ ৪২ পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। এদিকে কার্যনির্বাহী কমিটির অবশিষ্ট ১টি সদস্য পদে রতন লাল সাহা ও মো. শামসুজ্জোহা দু’জনই সমান সংখ্যক ১শ’ ৩২ ভোট পান।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..