শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০২:০৮ পূর্বাহ্ন

গণআন্দোলন ছাড়া গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা অসম্ভব : জাফরুল্লাহ

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৭ মার্চ, ২০১৯
  • ৮৬৩ বার পঠিত

জাফরুল্লাহ বলেন, দেশে গণতন্ত্রের কবর রচিত হয়েছে। এছাড়া ভোট লুণ্ঠন ও ভোট ডাকাতি হচ্ছে। এই অবস্থায় মওলানা ভাসানী বেঁচে থাকলে যা করতেন, আমাদের তাই করতে হবে। তিনি যেভাবে চিন্তা করতেন সেভাবে চিন্তা করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, ঢাকা শহরে মওলানা ভাসানীর একটি স্মৃতিসৌধ করতে চেয়েছিলেন জিয়াউর রহমান। তিনি বেশি দিন বাঁচেননি। তবে তার দল এখনও বেঁচে আছে। বিএনপি যদি জিয়াউর রহমানকে সম্মান করে, তাহলে তার কথাকেও সম্মান করা উচিত। বিএনপির উচিত প্রতি বছর মওলানা ভাসানীকে স্মরণ করা। বিএনপি যত বড় দলই হোক না কেন, দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে তারা একলা চলতে পারবে না।

জাফরুল্লাহ বলেন, দেশে গণতন্ত্রের কবর রচিত হয়েছে। এছাড়া ভোট লুণ্ঠন ও ভোট ডাকাতি হচ্ছে। এই অবস্থায় মওলানা ভাসানী বেঁচে থাকলে যা করতেন, আমাদের তাই করতে হবে। তিনি যেভাবে চিন্তা করতেন সেভাবে চিন্তা করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, ঢাকা শহরে মওলানা ভাসানীর একটি স্মৃতিসৌধ করতে চেয়েছিলেন জিয়াউর রহমান। তিনি বেশি দিন বাঁচেননি। তবে তার দল এখনও বেঁচে আছে। বিএনপি যদি জিয়াউর রহমানকে সম্মান করে, তাহলে তার কথাকেও সম্মান করা উচিত। বিএনপির উচিত প্রতি বছর মওলানা ভাসানীকে স্মরণ করা। বিএনপি যত বড় দলই হোক না কেন, দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে তারা একলা চলতে পারবে না।

জাফরুল্লাহ বলেন, দেশে গণতন্ত্রের কবর রচিত হয়েছে। এছাড়া ভোট লুণ্ঠন ও ভোট ডাকাতি হচ্ছে। এই অবস্থায় মওলানা ভাসানী বেঁচে থাকলে যা করতেন, আমাদের তাই করতে হবে। তিনি যেভাবে চিন্তা করতেন সেভাবে চিন্তা করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, ঢাকা শহরে মওলানা ভাসানীর একটি স্মৃতিসৌধ করতে চেয়েছিলেন জিয়াউর রহমান। তিনি বেশি দিন বাঁচেননি। তবে তার দল এখনও বেঁচে আছে। বিএনপি যদি জিয়াউর রহমানকে সম্মান করে, তাহলে তার কথাকেও সম্মান করা উচিত। বিএনপির উচিত প্রতি বছর মওলানা ভাসানীকে স্মরণ করা। বিএনপি যত বড় দলই হোক না কেন, দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে তারা একলা চলতে পারবে না।

জাফরুল্লাহ বলেন, দেশে গণতন্ত্রের কবর রচিত হয়েছে। এছাড়া ভোট লুণ্ঠন ও ভোট ডাকাতি হচ্ছে। এই অবস্থায় মওলানা ভাসানী বেঁচে থাকলে যা করতেন, আমাদের তাই করতে হবে। তিনি যেভাবে চিন্তা করতেন সেভাবে চিন্তা করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, ঢাকা শহরে মওলানা ভাসানীর একটি স্মৃতিসৌধ করতে চেয়েছিলেন জিয়াউর রহমান। তিনি বেশি দিন বাঁচেননি। তবে তার দল এখনও বেঁচে আছে। বিএনপি যদি জিয়াউর রহমানকে সম্মান করে, তাহলে তার কথাকেও সম্মান করা উচিত। বিএনপির উচিত প্রতি বছর মওলানা ভাসানীকে স্মরণ করা। বিএনপি যত বড় দলই হোক না কেন, দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে তারা একলা চলতে পারবে না।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..