বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ০৯:০৯ অপরাহ্ন

কয়রায় মাছের ঘেরে দুর্বৃত্তের হামলা আহত-৫।

 কয়রা, খুলনা প্রতিনিধি।
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৭ মে, ২০২২
  • ৫০ বার পঠিত
কয়রার বাগালি ইউনিয়নের একটি মৎস্য ঘেরে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় ৫ জন গুরুতর আহত হয়েছে।
ঘটনাটি ঘটেছে ৬ মে শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলা বাগালী ইউনিয়নের বামিয়া গ্রামের  একটি মাছের ঘেরে এই ঘটনা টি ঘটছে।  আহতরা হলেন,  ঘুগরাকাটি গ্রামের আবদুল মাজেদ গাজীর ২ পুত্র মোঃ ফজলুল হক( ৫৫) ও মোঃ গাউস গাজী (২৭) একই গ্রামের  ছাকা গাজীর পুত্র বাবলু গাজী ( ৩৫) মৃত ওয়াজেদ গাজীর পুত্র  মহাসিন গাজী (৫৭) ও আব্দুল মান্নান গাজীর পুত্র মোঃ বাদশা গাজী (২২)

 ভুক্তভোগী ও গ্রামবাসীরা জানান.বামিয়া গ্রামের  মোহাসিন গাজী তার নিজের মৎস্য ঘেরে মাছ ধরতে ছিলো এ সময় বামিয়া গ্রামের কামরুল গাজী ও মঞ্জুরুল গাজীর নেতৃত্বে ১৫/২০  জনের একটি সন্ত্রাসী  দল ঘের মালিক সহ তার আত্মীয়দের উপর অর্তকিত হামলা করে আটকে রেখে বেধড়ক মারপিট করতে থাকে, উপায়া না পেয়ে  ভুক্তভোগীরা পুলিশের জরুরী হেল্প লাইন  ৯৯৯ নম্বরে ফোন করলে তাৎক্ষণিক কয়রা থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল উপস্থিত হয়ে সেখান থেকে  আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তির সহযোগিতা করেন।
 ভুক্তভোগির স্বজনরা জানান, আমরা শুক্রবার সকালে আমাদের ঘেরে মাছ ধরাকালে দুর্বৃত্তরা দা, লাঠি, শাবল, রড, সাইকেলের চেইন দিয়ে আমাদের ধরে আটকে রেখে মারপিট করতে থাকে। এমন অবস্থায় আমরা ৯৯৯  এ ফোন করলে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে  এসে পুলিশ আমাদেরকে উদ্ধার করে।
 পুলিশের উপস্থিতিতে আমরা হাসপাতালে এসে ভর্তি হই। ভুক্তভোগীরা বলেন, নিজেদের  পৈত্রিক সম্পত্তিতে দীর্ঘদিন যাবৎ মৎস্য ঘের করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছি  কিন্তু প্রতিপক্ষরা বেশ কিছুদিন যাবৎ আমাদের হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছিলো। এ ব্যাপারে কয়রা থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছিল, কয়রা থানার জিডি নং ১০৮৪ তারিখ ২৬-৪-২২।
এছাড়া বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কয়রা খুলনার আদলতে ও একটি মামলা হয় মামলা নম্বর এম আর ৪৬/ ২২ এবং আমরা পরবর্তীতে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত কয়রা খুলনায়  মামলা দায়ের করি যার নম্বর সি / আর ১১৩/ ২২। বাগালি ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুস সামাদ গাজী বলেন, একটি পুকুর কে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ হয় এতে উভয় পক্ষের লোকজন আহত হয়েছে।
কয়রা থানার ওসি তদন্ত মো: ইব্রাহিম হোসেন বলেন, খবর পেয়ে আমরা তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থল থেকে আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসা দেওয়ার সহযোগিতা করি এ ব্যাপারে কোন পক্ষই লিখিত অভিযোগ করেনি অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..