মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ০৪:৫৬ অপরাহ্ন

কচুয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ল্যাব টেকনোলজিস্ট সহ জনবল সংকটে ভুগছে নমুনা সংগ্রহ কার্যক্রম

উজ্জ্বল কুমার দাস (কচুয়া,বাগেরহাট) প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল, ২০২১
  • ২৮৭ বার পঠিত

কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দ্বীর্ঘদিন যাবৎ করোনার নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছেনা।এনিয়ে আতংকের মধ্যে রয়েছে এলাকাবাসি সম্প্রতি এমন খবর প্রকাশিত হয়েছিল।ঘটনার সত্যতা অনুসন্ধানেও এমন তথ্যের প্রমান পাওয়া যায় একাধিক মাধ্যমে। এ বিষয়ে অনুসন্ধানে উঠে আসে জেলায় করোনা সংক্রমণ বেড়ে গেলেও কচুয়া উপজেলায় করোনার দ্বিতীয় ধাপ শুরু হওয়ার পর থেকে ল্যাব টেকনোলজিস্ট না থাকায় এসময় কোন ধরনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়নি।তাই এ উপজেলায় এখনো পর্যন্ত চিহ্নিত করা যায়নি করোনা রোগীর প্রকৃত সংখ্যা কি অবস্থায় আছে।এতে করে উপজেলার অনেকেই চাপা সংক্রমণ আতংকের মধ্যে দিন পার করছে। উল্লেখ্য দেশব্যাপি করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় একদিকে যেমন চিকিৎসকরা হিমশিম খাচ্ছে,আইসিইউ সংকট নিয়ে চলছে আতংক।প্রতি নিয়ত মৃত্যুর সংখ্যায় যোগ হচ্ছে নতুন-নতুন রেকর্ড।এতে উদ্বেগ প্রকাশ করে সরকার চলমান লকডাউন আবারও বৃদ্ধি করেছে।করা করি করা হয়েছে বিধিনিষেধ কিন্তু কচুয়া উপজেলায় সেই পরিস্থিতির ভিন্নতা লক্ষ্য করা গেছে। এবিষয়ে কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা.মনিশংকর পাইকের কাছ থেকে নেওয়া এক স্বাক্ষাতকারে তিনি বলেন,কিছু দিন জনবল সংকটের কারনে নমুনা নেওয়া বন্ধ থাকলেও এখন করোনা টেষ্ট কার্যক্রম আবার চালু হয়েছে কিন্তু একটু বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।এ বিষয়ে তিনি খোলাসা করে বলেন,ল্যাব টেকনোলজিস্টকে বাগেরহাট সদরে বদলি করা হয়েছে।এছাড়াও এমডিপিপিআই না থাকায় সেখানেও পোস্ট ফাঁকা।এমন অবস্থায় সিভিলসার্জন অফিসারের সাথে কথা বলে অন্য বিভাগের একজনকে সাময়িক দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তবে তার নিয়মিত কাজের সাথে অতিরিক্ত কাজ যোগ হওয়ায় কার্যক্রম ধীরগতি দেখাদিয়েছে। তিনি আরো উল্লেখ করেন,আগে যেখানে সপ্তাহে ৬ দিন নমুনা সংগ্রহ করা সম্ভব হতো এখন সেখানে ৩-৪ দিনের বেশি নেওয়া যাচ্ছে না।তবে সপ্তাহে রবিবার ও বুধবার গন-নমুনা নেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।জনবল সংকটের কারনে তিনি নিজেও এ কাজে সাহায্য করছেন বলে উল্লেখ করেন।স্থায়ী টেকনোলজিস্ট সহ প্রয়োজনীয় জনবল বৃদ্ধি করা হলে যে সংকট বা কার্যক্রম বাধাগ্রস্তের কথা বলা হচ্ছে সেই সমস্যা আর থাকবে না। করোনা কালিন পরিস্থিতিতে উর্ধতন কর্মকর্তার কাছে সাধারণ জনগণের দাবী শুধু করোনা কালীন পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য নয় সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে দ্রুততম সময়ের মধ্যে যেন জনবল সংকট সহ নানা সমস্যার সমাধান করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..