শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০৬:৪৯ পূর্বাহ্ন

কচুয়া উপজেলা চেয়ারম্যানের জানাজা শেষে পারিবারিক কবর স্থানে দাফন সম্পন্ন

উজ্জ্বল কুমার দাস (কচুয়া,বাগেরহাট) প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৭ মে, ২০২১
  • ৩৭৮ বার পঠিত

বাগেরহাট জেলার কচুয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এস.এম মাহফুজুর রহমানের জানাজা শেষে ৬ মে বিকাল ৪ টায় মরদেহ তার পারিবারিক কবর স্থানে দাফন করা হয়েছে। বর্ষীয়ান এই রাজনীতিবিদ বেশ কিছুদিন ধরে শ্বাসকষ্টসহ নানা সমস্যায় ভুগছিলেন। সব শেষে এপ্রিল মাসের প্রথম দিকে খুলনার সিটি মেডিক্যাল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।এর পর উন্নত চিকিৎসার জন্য ০২ মে তাকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে। এরপর তার অবস্থায় আরো অবনতি হলে গত ০৫ মে বুধবার বিকেল ৪.৪৫ মিনিটের সময় রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।আজ অনুষ্ঠিত হয়েছে তার জানাজা নামাজ। মৃত্যু কালে তার বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর।তার সাংসারিক জীবনে ২ মেয়ে,২ ছেলে ও ৩ স্ত্রীসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। বিভিন্ন সময় তাকে নিয়ে নানা আলোচনা সমালোচনা হলেও তার রাজনৈতিক ও ব্যাক্তিজীবনে নানা প্রসংশাও কুড়িয়েছেন তিনি।যুবক বয়সে তৎকালীন (বিডিআর)বর্তমান বাংলাদেশ বর্ডার গার্ডের সদস্য হিসেবে তার কর্মজীবন শুরু করেন কিন্তু সেখানে কর্মজীবন শেষ না করে তিনি স্থায়ী ভাবে নিজ এলাকায় চলে আসেন।রাড়িপারা ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচিত সদস্য হিসেবে জনপ্রতিনিধি হয়ে নতুন করে যাত্রা শুরু করেন।এর পর আর তাকে পিছু ফিরে তাকাতে হয়নি। পরবর্তীতে ৩ বার পরপর রাড়ীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন শেষ করে ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে সর্বপ্রথম কচুয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।এরপর ২০১৪ সালের নির্বাচনেও তিনি একই দলের প্রার্থী হিসেবে আবারও পুনঃরায় নির্বাচিত হয়।সর্বশেষ ২০১৯ সালের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে টানা তৃতীয়বারের মতো তিনি কচুয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হয়ে দলীয় প্রশংসা পেয়েছেন ।মৃত্যুর আগ মুহূর্ত পর্যন্ত উপজেলা চেয়ারম্যান ছাড়াও বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগের নির্বাহী কমিটির সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন। তার রাজনৈতিক ও কর্মময় জীবনে তিনি এম আর এগ্রো ফার্ম নামে একটি প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছিলেন।তিনি ছিলেন হাজেরা খাতুন হেলথ্ কেয়ার লিঃ এর অংশীদার,সাইনবোর্ড বাজারে তৈরী করেছেন মাহাফুজ চপ্তর এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথেও তিনি যুক্ত ছিলেন , রাজনৈতিক জীবনেও রেখেছেন বিশেষ অবদান। সব স্বপ্নের ইতি টেনে এখন তিনি না ফেরার দেশে।তার মৃত্যুতে শোক ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী,সংসদ সদস্য সাহারা নাসের তন্ময় ও তার পিতা হেলাল উদ্দিন এমপি ছাড়াও রাজনৈতিক সংগঠনের বিভিন্ন নেতা কর্মী,সামাজিক সংগঠন,সহকর্মী,নিকট আত্মীয় সহ নানা শ্রেণী পেশার মানুষ

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..